আমি দীর্ঘদিন ইউকে তে ছিলাম, ইউকে সহ পশ্চিমা দেশগুলো তথ্য-প্রযুক্তিতে অনেক এগিয়ে গেছে। বর্তমানে ইউকে এর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ইশিখনের মত অনলাইন কোর্সও চালু আছে। বাংলাদেশেও খুব বেশি দেরি নেই। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় এই ইশিখনের সাথে হাত মিলিয়ে এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে একসাথে কাজ করার। পশ্চিমা বিশ্বগুলো যদিও তথ্য-প্রযুক্তিতে অনেক এগিয়ে তবে ইশিখনে যতগুলো ফিচার যুক্ত আছে, তা সত্যিই আমাকে মুগ্ধ করেছে। আজ এই উদ্যোগটি পশ্চিমা কোন দেশে হলে সরকার এই উদ্যোগ নিয়ে কাজ করুনতো। আমার মনে হয়, ইশিখনকে শুধু বাংলাদেশে সিমাবদ্ধ না রেখে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেওয়া উচিত।

রেহান জে প্রতিষ্ঠাতা, হ্যালোবিডি.কম.বিডি