সারাদেশে ৩ থেকে ৫ মাসব্যাপী ফ্রিল্যান্সিং কোর্স প্রশিক্ষণ, বৃত্তি+চাকরির সুযোগ।  মাত্র ১২,০০ থেকে ১৮,০০ টাকায় পাচ্ছেন ১২,০০০ থেকে ১৮,০০০ টাকার প্রতিটি কোর্স কুপনকোড: pro-offer  কিভাবে রেজিস্ট্রেশন করবেন দেখুন এখানে    আরো বিস্তারিত এখানে

কেন শিখবেন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ?

ওয়েব ডেভলপমেন্ট পরিচিতি-

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট হচ্ছে ওয়েবসাইটের জন্য এপ্লিকেশন তৈরী করা। যদি ফ্রিল্যান্সিং করেন তাহলে ক্লাইন্টের চাহিদা অনুযায়ী এমনও এপ্লিকেশন তৈরী করা লাগতে পারে যার অস্তিত্ব পৃথিবীতে নেই। এই বিষয়টি বেশি চ্যালেন্জিং এবং ডাইনামিক। অর্থ্যাৎ আপনাকে এপ্লিকেশন ডিজাইন করতে হবে। তাই ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কে আরও সুনির্দিষ্ট করে বলা যায় ওয়েব এপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট।

 

ওয়েব ডিজাইন শিখবেন নাকি ডেভলপমেন্ট-

এক কথায় বলব আপনি যদি ক্রিয়েটিভ হন, আপনার চয়েস গুলো যদি হাজার জনের চেয়ে সুন্দর হয় তাহলে আপনি ওয়েব ডিজাইনিং এ ভালো করতে পারবেন।  অন্যথায় ওই দিকে না যাওয়া ই ভালো। কেননা মার্কেটে একশ জন ডেভেলপার এর বিপরীতে একজন ডিজাইনার লাগে। তারমানে বুজতেই পারছেন ডিজাইনিং সেক্টর এ প্রতিযোগিতা অনেক বেশি। অন্যদিকে  ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার জন্য অত বেশি ক্রিয়েটিভ হওয়া লাগেনা।

 

কেন শিখবেন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট –

ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে মাল্টি বিলিয়ন ডলারের একটা বিশাল বাজার।একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভলপারের কাজের ক্ষেত্র অনলাইনে এতটাই বিস্তৃত যে, ফ্রিল্যান্সিং এর বিশাল বাজেটের কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে পারে, ব্লগিং করে উপার্জন করতে পারে, বিভিন্ন অনলাইন শপিং মার্কেটে নিজের তৈরিকৃত ডিজাইন জমা দিয়ে উপার্জন করতে পারে। এ ধরনের বহুমূখী উপার্জনের রাস্তা খুলে যায় একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভলপারের জন্য ।

অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলিতে রয়েছে ওয়েব ডেভেলপারের ব্যাপক কাজের চাহিদা। একজন ফ্রিল্যান্সার প্রতি ঘন্টায় ১০ থেকে ১২ ডলার রেটে কাজ শুরু করতে পারে। তবে সময়ের সাথে সাথে সে যদি সফলতার সঙ্গে কাজ করতে পারে তাহলে সে তার রেট ভবিষ্যতে আরো বাড়িয়ে নিতে পারবে। একজন অভিজ্ঞ ওয়েব ডেভেলপারের ঘন্টায় ৮০ থেকে ১০০ ডলার রেটেও কাজ করতে পারে।

 

ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে কী করতে হবে-

পৃথিবীর যেকোনো কাজেই ধৈর্য, পরিশ্রম, কাজের প্রতি ভালোবাসা ও সঠিক দিকনির্দেশনা খুব প্রয়োজন। সবসময়ই অন্য কাউকে আউটসোর্সিং করতে দেখলে আফসোস করি, কিন্তু তাদের আয়কে লোভ না করে তারা কীভাবে এই জায়গাটা অর্জন করেছে সেটা খতিয়ে দেখাটাই গুরুত্বপূর্ণ। আর জীবনের শুরুতেই নির্দিষ্ট কোনোকিছুর জন্য নিজেকে ভালোভাবে যোগ্য করে তোলাই বুদ্ধিমানের কাজ। আমাদের দেশে ওয়েব ডেভেলাপিং কোর্স শেখানোর অসংখ্য প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে ৬ মাস কিংবা ১ বছরের মেয়াদি কোর্সে ভর্তি হয়ে মনোযোগের সঙ্গে কোর্সটি সম্পন্ন করুন। কোর্স সম্পন্ন হওয়ার আগেই আপনি আউটসোর্সিং করার যোগ্য হয়ে উঠবেন।

কোর্স শেষে আয়ের ক্ষেত্রসমুহ-

  • আপওয়ার্ক , ফাইভর
  •  এনভাটো মার্কেকে টেমপ্লেট বিক্রি।
  • ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে যেকোন আইটি কম্পানিতে চাকরি
  •  আপওয়ার্ক ও ফাইবারে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট সর্ম্পকিত কাজ

ওয়েব ডেভলপমেন্টে শিখার পর আপনি কি করতে পারবেন-

  • ওয়েব সাইট এবং ওয়েব এপপ তৈরি
  • জুনিয়র ডেভেলপার হিসেবে যেকোন সফ্টওয়্যার ফার্ম বা আইটি কম্পানিতে চাকরির সুযোগ
  • নিজস্ব অনলাইন ব্যবসা যেমন ইকমার্স, ডোমেইন হোস্টিং, এফিলিয়েট মার্কেটিং
  • সার্ভার সাইড এবং ডাটাবেইজ ভিত্তিক দক্ষতা অর্জন
  • এইচটিএমএল ভিত্তিক মোবাইল এপপ তৈরি
  • ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটে প্রজেক্ট বিড
  • একজন বিলাসি ফ্রন্ট ইন্ড ডেভেলপার হওয়া
  • HTML, CSS, Js, PHP, bootstrap, WordPress

 

কোথায় শিখবেন ওয়েব ডেভলপমেন্ট?

এখন অনলাইনে এত রিসোর্স  যে খুব সহজে একা একাই  আপনি শিখতে পারবেন, তবে সেটা আপনার জন্য অনেককাংশে দূরহ ব্যাপার হয়ে দাড়াবে। w3schools  যেখানে সব টিউটোরিয়াল রিসোর্স পাবেন।  আর টুলস্ পেজে পাবেন সব রকম  টুলস্ । অথবা বিভিন্ন প্রকার ট্রেনিং সেন্টার থেকেও শিখতে পারেন। একটা ব্যাপারে লক্ষ্য রাখবেন ।আমাদের দেশে এখন পযর্ন্ত  ভাল মানের ট্রেনিং সেন্টার আছে হাতে গোনা কয়েকটি। তার মধ্যে অন্যতম হলো ইশিখন। ইশিখনে কোর্স করলে আপনি কোর্স সম্পর্কিত অন্যান্য  সুবিধাসমূহ পাবেন।

 

ইশিখনে ওয়েব ডেভলপমেন্ট শিখার অন্যান্য সুবিধা-  

  •  লাইভ ক্লাস মিস করলে পরের দিন কোর্সের ভেতর উক্ত ক্লাসের ভিডিও রেকর্ডিং ও আলোচিত ফাইল সমুহ পাবেন।
  •  লাইভ ক্লাসের সম্পূর্ণ ফ্রি ভিডিও কোর্স, ( শুধুমাত্র এই ভিডিও কোর্সই অনেক প্রতিষ্ঠান হাজার হাজার টাকায় বিক্রি করে।)
  •  ক্লাস শেষে এসাইনমেন্ট জমা দেওয়া। (প্রতিটি এসাইনমেন্ট এর জন্য ১০ মার্ক)
  •  ক্লাসের লাইভ ক্লাসের পাশাপাশি প্রাকটিজ ফাইল পাবেন এবং কনটেন্ট পাবেন।
  •  প্রতিটি ক্লাসের প্রথম ১৫ মিনিট আগের ক্লাসের সমস্যাগুলো সমাধান হবে, পরের ১ ঘন্টা মুল ক্লাস শেষ ১৫ মিনিট প্রশ্নোত্তর পর্ব
  • প্রতিটি ক্লাসের শেষে ১০ নাম্বারের মডেল টেস্ট। এই মডেল টেস্ট মার্ক এবং এসাইমেন্ট মার্ক ও নিয়মিত উপস্থিতির উপর ভিত্তি করেই পরবর্তীতে আপনার সার্টিফিকেট এর মান নির্ধারণ হবে।
  •  কোর্স শেষে সার্টিফিকেট
  • লাইভ ক্লাস সমুহের ডিভিডি
   
   

0 responses on "কেন শিখবেন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ?"

Leave a Message

Your email address will not be published.

Varify Certificate

top